আওয়ামী লীগ ও বিএনপি দেশের মানুষের সাথে প্রতারণা করেছে – গোলাম মোহাম্মদ কাদের

পরে এক যোগদান অনুষ্ঠানে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা জনবন্ধু গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি বলেছেন, দেশে নারীরাও এখন অপহরণ হচ্ছে। হতভাগ্য নারীদের কেউ ফিরে আসছেন আবার কেউ চিরদিনের মত হারিয়ে যাচ্ছে। বিদেশী গণমাধ্যমে এমন সংবাদে দেশের ভাবমূর্তি মারাত্মকভাবে ক্ষুন্ন হচ্ছে। তিনি বলেন, দেশে এখন আর গণতন্ত্র নেই। দেশের মানুষের কোন অধিকার নেই। দেশের কোথাও জবাবদিহিতা নেই।

আজ দুপুরে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান এর বনানীস্থ কার্যালয়ে মৌলভীবাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলতাফুর রহমান এর নেতৃত্বে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের কয়েকজন নেতা-কর্মী জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের এর হাতে ফুল দিয়ে জাতীয় পার্টিতে যোগ দেন। এসময় তাকে স্বাগত জানিয়ে দেয়া বক্তৃতায় জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের একথা বলেন।

এসময় জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের আরো বলেন, জাতীয় পার্টি সম্বন্ধে অনেকের ভূল ধারণা আছে। তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি কখন্ইো আওয়ামী লীগ এর বি-টিম নয়। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ও বিএনপি দেশের মানুষের সাথে প্রতারণা করেছে। তারা দেশের মানুষের সাথে মিথ্যাচার করে বলেছে, পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এর জাতীয় পার্টির শাসনামলের চেয়ে জনগণকে বেশি অধিকার দেয়ার কথা হবে। আসলে, পল্লীবন্ধুর দেশ পরিচালনার সময় সাধারণ মানুষ যে অধিকার ভোগ করেছে, এখন তার ছিটেফোটাও নেই। এখন নির্বাচনের নামে প্রহসণ চলছে। প্রজাতন্ত্রের মালিক হচ্ছেন দেশের সাধারণ মানুষ। অথচ তারা ইচ্ছেমত প্রতিনিধি নির্বাচন করতে পারছেন না, এমনকি পছন্দমতো না হলে প্রতিনিধি পরিবর্তনেও তারা আজ অপারগ। প্রতিনিধিদের সরকার পরিচালনায় জনগণের ইচ্ছা-অনিচ্ছার প্রতিফলন দৃশ্যমান নয়। এক কথায় জনগণ মালিক বা দেশ যে প্রজাতন্ত্র তা বাস্তবে অনুপস্থিত। দেশের উপর সাধারণ জনগণের মালিকানা স্বত্ত্ব ছিনতাই হয়ে গেছে।

তাই সাধারণ মানুষ রাজনীতি ও ভোটের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন। আমরা চাই প্রকৃত গ্রণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে। প্রকৃত গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হলে দেশে জবাবদিহিতার পরিবেশ সৃষ্টি হবে, সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হবে। মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বৈষম্য দূরীকরণ, দূর্নীতির অবসান ও বেকারত্বের অভিশাপমুক্ত সুখী-সমৃদ্ধশালী নতুন বাংলাদেশ গড়াই আমাদের রাজনীতি।

যোগদান অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন পার্টির মহাসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা মুজিবুল হক চুন্নু এমপি, আতিকুর রহমান আতিক, মৌলভীবাজার জেলা আহ্বায়ক কামাল উদ্দিন, সদস্য সচিব, মাহমুদ আলম মাহমুদ, উপস্থিত ছিলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, ফখরুল ইমাম এমপি, শফিকুল ইসলাম সেন্টু, নাজমা আখতার এমপি, মেজর অব. রানা মো: সোহেল এমপি, মোস্তফা আল মাহমুদ, চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা শেরীফা কাদের এমপি, হেনা খান, ভাইস চেয়ারম্যান আহসান আদেলুর রহমান আদেল এমপি, জাহাঙ্গীর আলম পাঠান, আমির উদ্দিন আহমেদ ডালু, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মঞ্জুর হোসেন মঞ্জু, সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন তোতা, তফতর সম্পাদক-২ এম এ রাজ্জাক খান, কেন্দ্রীয় নেতা প্রিন্সিপাল মোস্তফা চৌধুরী, আলমগীর হোসেন, মো: আরিফুল ইসলাম রুবেল, মখলেছুর রহমান বস্তু, শামীম আহমেদ রিজভী। যোগদানকারীর সাথে ছিলেন ইয়াকুব হোসেন, জহিরুল মোর্শেদ, জুবায়ের আহমেদ, এমদাদুল হক, সোহেল আহমেদ, শাহজাদী বেগম, খালেদা বেগম, ডলি আক্তার, মো: আল আমিন, জহির উদ্দিন ভূঁইয়া, শাহ কামাল, মোবাশ্বের আলী, শাবনুর।

খন্দকার দেলোয়ার জালালী

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান এর

প্রেস সেক্রেটারি – ০২

মাসিক চাঁদা পরিশোধ

মাসিক চাঁদা পরিশোধের জন্য বিকাশ একাউন্টের পেমেন্ট অপশন এ গিয়ে 01958368820 এই নাম্বার বা  বিকাশ অ্যাপস থেকে নিচের QR কোড স্ক্যান করে মাসিক চাঁদা পরিশোধ করতে পারবেন বা ডিজিটাল সফটওয়্যারের মাধ্যমে যেকোন ক্রেডিট/ডেবিট কার্ড দিয়েও দেয়া যাবে বিস্তারিত


This will close in 20 seconds

error: Content is protected !!